Sunday, January 20, 2019
সর্বশেষ সংবাদ
ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিল হবে না: আইনমন্ত্রী         বিরোধীদের নির্মূলে সরকার মরিয়া: মির্জা আলমগীর         পুনঃনির্বাচনের দাবিতে আন্দোলনে নামছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ও বাম জোট         বন্দিদের সঙ্গে সাক্ষাৎ ৩ দিন বন্ধ থাকবে         কোম্পানীগঞ্জে গর্তে পড়ে আবারো এক শ্রমিক নিহত         সিসিকের বকেয়া বিল আদায় অভিযান অব্যাহত, ৭ দিনে ৩৩ লাখ টাকা আদায়         ছড়া-খাল দখলকারীরা যত বড় প্রভাবশালী হোক, তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা-সিসিক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী         নগরীতে ‘বৈকালিক সম্প্রসারিত টিকাদান কর্মসূচির উদ্বোধন’ টিকাদান কর্মসূচিতে বিশ্বে বাংলাদেশ এখন রোল মডেল—সিসিকের প্রধান নির্বাহী         চার দেশে আশ্রয় চাইলেন আলোচিত সৌদি যুবতী কুনুন         ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২: স্থগিত ৩ কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ চলছে        

সিলেটবাসীর কন্ঠে “আহা আজি এ বসন্তে ”

6মো: ছাদেকুর রহমান : বসন্তের এই দিনে বন্ধু তুমি কই…..! আজ পহেলা বসন্ত। ঋতুরাজ বসন্তের প্রথম দিন। ফুল ফুটুক আর নাই ফুটুক  ‘এসো প্রাণের উৎসবে’ এই স্লোগান নিয়ে ঋতুরাজ বসন্তকে বরণ করে নিতে উৎসবে মেতে ওঠেছে সবাই । শুধু বাংলাদেশী নয় এ দেশে বসবাসরত বিদেশী বন্ধুরাও যোগ দিয়েছেন বসন্ত বরণ উৎসবে । সারা দেশের ন্যায় সিলেটেও চলছে বসন্ত উৎসব । সিলেট জুড়েই যেন লেগেছে হলুদ রংয়ের ছোঁয়া। কলেজ বিশ্ব বিদ্যালয়ে পড়–য়া যুবতিদের পাশাপাশি রঙ্গিন সাজে সেজেছে বিভিন্ন বয়সের নারীরা নিজেদের বসন্তের সাজে সাজাতে খোপায়-গলায়-মাথায় পরেছে গাঁদা ফুলের মালা। হাতে রেশমি চুড়ি আর পরনে বাসন্তী রঙ্গের শাড়ি। বসন্ত উপলক্ষে পুরুষদের পরনেও শোভা পাচ্ছে রঙ্গিন পাঞ্জাবি, ফতুয়া। সব কিছু মিলিয়ে প্রকৃতির সঙ্গে সিলেটবাসীও জানান দিচ্ছে আজ বসন্ত।  শীতের রিক্ততা মুছে দিয়ে প্রকৃতি জুড়ে আজ সাজ সাজ রব। হিমেল পরশে বিবর্ণ প্রকৃতিতে জেগে উঠছে নবীন জীবনের প্রাণোল্লাস। নীল আকাশে সোনাঝরা আলোকের মতই হূদয় আন্দোলিত। আহা! কি আনন্দ আকাশে বাতাসে..। ‘আহা আজি এ বসন্তে/ এত ফুল ফোটে এত বাঁশি বাজে এত পাখি গায়…।

ফুল ফুটবার পুলকিত এ দিনে বন-বনান্তে কাননে কাননে পারিজাতের রঙের কোলাহলে ভরে উঠেছে চারদিক । গাছের ডালে পাতার আড়ালে লুকিয়ে থাকা বসন্তের দূত কোকিলের কুহু-কুহু ডাক ব্যাকুল করে তুলেছে অনেক বিরোহী অন্তর।খুজছে তার প্রিয়তমাকে। পহেলা বসন্তের পড়ন্ত বিকেলে সিলেটবাসী বসন্তকে উদযাপন করতে জড়ো হন সিলেট শিল্পকলা একাডেমিতে । নানা বয়সী মানুষের ভীড়ে শিল্পকলা  একাডেমি হয়ে ওঠে পরিপূর্ণ উৎসবের আমেজ। বসন্তের গান, কবিতা, নৃত্য পরিবেশিত হয়। সাথে ছিল সিলেটের আঞ্চলিক ভাষায় রচিত মঞ্চ নাটক,জারি সারি,ভাঠিয়ালি আর বিশ্বখ্যাত আবদুল করিমের বিখ্যাত গান। আবৃত্তি করা হয় কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলামের কবিতা। এ ছাড়া রবী ঠাকুরের বিখ্যাত বসন্তের গানও পরিবেশন করা হয়।

 

শুধু শিল্পকলা নয় সংস্কৃত কলেজ, মদন মোহন কলেজ, শাবিপ্রবি,কেনদ্রীয় শহিদ শহীদ মিনার সহ সব জায়গায়ই চলছে বসন্ত উৎসব ।4
এদিকে, পহেলা ফাল্গুনে সরকারী ছুটির দিন শুক্রবার হওয়ায় সিলেটের প্রাচীন বিদ্যাপীঠ এম সি কলেজের বসন্ত উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে শনিবার সকাল ১০টায়। একমাত্র সাংস্কৃতিক সংগঠন মোহনা প্রতি বছরের ন্যায় এবারও বসন্ত উৎসব আয়োজন করেছে । তাদের এ আয়োজনে যোগ হযেছে বাসন্তীদের মনের অজানা কথা বসন্ত মানে শুধু প্রেমের মিলন নয়, প্রেমের সঙ্গে জড়িয়ে থাকে নানা রকম শঙ্কা ও সন্দেহ। তাই এই মধুর দিনে এমন শঙ্কাও কি জাগে না অধীর প্রতিক্ষায় থাকা কোন মনে- ‘সে কি আমায় নেবে চিনে/ এই নব ফাগুনের দিনে- জানিনেৃ?’ কবির এ শঙ্কা আজ বাজছে কারো কারো হৃদয়ে।
বনে বনে রক্তরাঙা শিমুল-পলাশ, অশোক-কিংশুকে বিমোহিত জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ভাষায়: ‘এলো খুনমাখা তূণ নিয়ে/ খুনেরা ফাগুন..।’ আবার তারই কণ্ঠে:‘ফাগুন এলো বুঝি মহুয়া-মালা গলে/চরণ-রেখা তার পিয়াল-তরু তলে/পরাগ-রাঙা চেলি অশোক দিল মেলি’..
তাইতো বসন্ত বাতাসে পুলকিত ভাটি বাংলার কণ্ঠ শাহ আবদুল করিম গেয়ে ওঠেন:‘বসন্ত বাতাসে..সই গো /বসন্ত বাতাসে/বন্ধুর বাড়ির ফুলের গন্ধ আমার বাড়ি আসে…’
ঋতুচক্র এখন যেন আর পঞ্জিকার অনুশাসন মানছে না। কুয়াশার চাদরমোড়া অকাল শীত তার তীব্রতা ছড়াতে না ছড়াতেই বিদায় নিল। প্রকৃতির দিকে তাকালে শীত বর্ষার মত বসন্তকেও সহজে চেনা যায়। বাঙালির জীবনে বসন্তের উপস্থিতি সেই অনাদিকাল থেকেই। সাহিত্যের প্রাচীন নিদর্শনেও বসন্ত ঠাঁই পেয়েছে নানা অনুপ্রাস, উপমা, উপেক্ষায় নানাভাবে।
আগামীকাল বিশ্ব ভালবাসা দিবস । আমাদের ঋতুরাজ বসন্তের আবাহন আর পশ্চিমের ভ্যালেন্টাইন-ডে যেন এক বৃন্তের দুটি কুসুম। এ যেন এক সুতোয় গাঁথা দুই সংস্কৃতির এক দ্যোতনা। মানুষের মতই এ সময় পাখিরাও প্রণয়ী খোঁজে। বাসা বাঁধে। রচনা করে নতুন পৃথিবী।7

বসন্ত মানেই পূর্ণতা। বসন্ত মানেই নতুন প্রাণের কলরব। কচিপাতায় আলোর নাচনের মতোই বাঙালির মনেও লাগবে দোলা। বিপুল তরঙ্গ প্রাণে আন্দোলিত হবে বাঙালি মন। বাঙালি জীবনে বসন্তের আগমন বার্তা নিয়ে আসে ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি’। এ বসন্তেই ভাষা আন্দোলনের মধ্যদিয়ে বাঙালির স্বাধীনতার বীজ রোপিত হয়েছিল। বসন্তেই বাঙালি মুক্তিযুদ্ধ শুরু করেছিল। তাই কেবল প্রকৃতি আর মনে নয়, বাঙালির জাতীয় ইতিহাসেও বসন্ত আসে এক বিশেষ মহাত্ম্য নিয়ে। বসন্ত হয়ে উঠেছে এক অনন্য উৎসব । হালে শহরের যান্ত্রিকতার আবেগহীন সময়ে বসন্ত যেন কেবল বৃক্ষেরই, মানুষের আবেগে নাড়া দেয় কমই। তারপরও আজ বসন্তের পয়লা দিনে নানা আয়োজনে আলোড়িত হচ্ছে সিলেট। বিশেষত বাসন্তী শাড়ি সফেদ-শুভ্র পাঞ্জাবি খোপায় গাঁধা ফুল বেধে  তরুণ-তরুণীরা মার্কেট, ফুলের দোকান,  কলেজ ,বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস, শহীদ মিনার , শিল্পকলা ,ফাস্টফুড ক্যাফেতে বসন্ত আবাহন করেছেন নানা নৈবেদ্যে, নানা অনুষঙ্গে।

সর্বশেষ সংবাদ