বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ শ্রাবণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

১২ দিন পর মাঠে নামছে শ্রীলঙ্কা, প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়া



মাঠেই নামা হচ্ছে না শ্রীলঙ্কার। বৃষ্টির ‘আশীর্বাদে’ বসে বসে পয়েন্ট পাচ্ছে তারা! টানা দুই ম্যাচে তো এভাবেই ২ পয়েন্ট নামের পাশে যোগ করেছে লঙ্কানরা। বৃষ্টি বাগড়া না দিলে ১২ দিন পর আজ শনিবার আবার বিশ্বকাপে নামার সুযোগ পাবে দলটি। ওভালে তাদের অপেক্ষায় অস্ট্রেলিয়া।

শনিবার বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৩টায় মুখোমুখি হবে অস্ট্রেলিয়া-শ্রীলঙ্কা। ম্যাচটি সরাসরি দেখা যাবে বিটিভি, মাছরাঙা ও স্টার স্পোর্টস ওয়ান চ্যানেলে।

কাগজে-কলমে শ্রীলঙ্কার খেলেছে চার ম্যাচ। যদিও মাঠে নেমে খেলার সুযোগ হয়েছে তাদের দুটি। বাকি দুই ম্যাচে টসও করতে পারেনি ১৯৯৬ সালের চ্যাম্পিয়নরা। যাতে লাভই হয়েছে তাদের, এই মুহূর্তে ৪ পয়েন্ট নিয়ে রয়েছে পঞ্চম স্থানে।

টানা দুই ম্যাচ পরিত্যক্ত হওয়ায় আজ অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে খেলা হলে ১২ দিন পর মাঠে নামবে শ্রীলঙ্কা।

৪ জুন আফগানিস্তানের বিপক্ষে সর্বশেষ ম্যাচ খেলেছে দিমুথ করুণারত্নেরা। এরপর ব্রিস্টলে পাকিস্তান ও বাংলাদেশের বিপক্ষে বৃষ্টিতে মাঠে নামা হয়নি তাদের। আজ সুযোগ হলে দিতে হবে কঠিন পরীক্ষা। সামলাতে হবে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়াকে।

ভারতের বিপক্ষে হারের ধাক্কা অ্যারন ফিঞ্চরা কাটিয়ে উঠেছে পাকস্তানের বিপক্ষে জয়ে। টন্টনের ম্যাচের জয়ে আরও আত্মবিশ্বাসী হয়ে নামতে যাচ্ছে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে।

পাকিস্তানের বিপক্ষে আস্থা রাখা চার পেসার নিয়েই দেখা যেতে পারে তাদের। মার্কাস স্টোইনিস চোট কাটিয়ে উঠতে পারেননি এখনও।

শ্রীলঙ্কার জন্য সুসংবাদ হলো নুয়ান প্রদীপের অনুশীলনে ফেরা। বাংলাদেশের ম্যাচ থেকে ছিটকে গিয়েছিলেন এই পেসার। শাশুড়ির মৃত্যুতে দেশে যাওয়া লাসিথ মালিঙ্গা যোগ দিয়েছেন দলের সঙ্গে। তিনি খেলার মতো অবস্থায় থাকলে প্রদীপকে নিয়ে সম্ভবত ঝুঁকি নেবেন না লঙ্কানরা।

সাম্প্রতিক পারফরম্যান্সে অস্ট্রেলিয়া পরিষ্কার ফেভারিট। তবে ওভালের অতীত পরিসংখ্যান কিন্তু শ্রীলঙ্কাকে অনুপ্রাণিত করছে। ২০১৩ সালে লন্ডনের এই মাঠে দুই দলের মুখোমুখি লড়াইয়ে চ্যাম্পিয়নস ট্রফি থেকে অস্ট্রেলিয়াকে বিদায় করে দিয়েছিল লঙ্কানরা। নিশ্চিতভাবে ওই দিনটা ফিরিয়ে আনায় চেষ্টা করবেন মালিঙ্গারা।